গাজিপুর সিটিতে রাস্তা দখল করে বসানো হয়েছে বাজার দূর্ভোগ চরমে

0
316

স্টাফ রিপোর্টারঃ গাজিপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র এ্যাড.জাহাঙ্গীর আলম এর নেতৃত্বে ৫৭টি ওয়ার্ড জুড়েই যেখানে চলছে নতুন নতুন রাস্তা-ঘাট,ড্রেনেজ নির্মান, রাস্তা প্রশস্ত করন কাজ সহ বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড।সেখানে এর ব্যতিক্রম হচ্ছে টংগীর ৫৬ নং ওয়ার্ড এর মধুমিতা রোডের হাউজবিল্ডিং ও মুন্সিপাড়া এলাকা। এখানে মেয়রের কতিপয় অনুসারী ও সমর্থকগন রাস্তা বন্ধ করে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে বসিয়েছে কাঁচা বাজার ও মাছ বাজার।উল্লেখিত স্থানটি হচ্ছে টংগী ৫৬ নং ওয়ার্ড এর মধুমিতা রোড হাউজবিল্ডিং ও মুন্সিপাড়া বাইতুস সালাম জামে মসজিদ এর সংলগ্ন রাস্তা-ঘাট। এখানে প্রতিদিন ভোর ৬ টা হতে গভীর রাত্র পর্যন্ত রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে বসানো হয়েছে কাঁচা বাজার-মাছ বাজার,ফলের দোকানসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দোকান। যার কারনে প্রতিদিন স্কুলগামী, অফিসগামী হাজার হাজার নাগরিকদের জনজীবনে চরম দূর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিদিন এই সব ব্যবসায়ীদের কাছে থেকে নেয়া হচ্ছে মোটা অংকের চাঁদা। মুন্সিপাড়া বাইতুস সালাম জামে মসজিদ কমিটির উন্নয়ন তহবিল সংগ্রহ করার নামে মুন্সিপাড়া এলাকার গুটিকয়েক আওয়ামী লীগের নেতা ও মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের আস্থাভাজন বলে পরিচিত টংগী সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক এক ছাত্রলীগ নেতার প্রত্যক্ষ মদদে এই কাঁচা বাজার বসিয়ে চলছে চাঁদাবাজির মহাউৎসব।উল্লেখ্য যে, ৫৬ নং ও ৫৭ ওয়ার্ডে স্বনাম ধন্য বেশ কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেমন সিরাজউদ্দিন সরকার, আমজাদ আলী গার্লস, আরিচপুর সরকারী স্কুল সহ অন্যান্য স্কুল গুলিতে সিলুমন, মুরকুন, নতুনবাজার, মিরাশপাড়া, পাগার হতে হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকদের এই পথেই যাতায়াত করতে হয়। অবৈধ হাট বাজার বসানোর দরুন প্রতিদিন এই পথে তীব্র যানজট সৃষ্টির কারনে জনজীবনে রীতিমত নাভিঃশ্বাস ও হয়রানি হতে হচ্ছে। এখানে উল্লেখ্য যে, অটোরিক্সা প্রশাসনের আইন অনুযায়ী মহাসড়কে চলার অনুমতি না থাকায় বিকল্প পথ হিসাবে এই পথেই যাতায়াত করতে হয়। শুধু তাই নয়, আইচি মা ও শিশু হাসপাতালে প্রতিদিন শত শত নবজাতক নিয়ে মা ও প্রসুতিগামী মায়েদেরও চলাচলের এটাই একমাত্র পথ। মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের আস্হাভাজন বলে পরিচিত ও টঙ্গী কলেজের সাবেক প্রভাবশালী ছাত্রলীগ নেতা ও মসজিদ কমিটির কতিপয় অসাধু কর্তা ব্যাক্তির লোভ ও চাঁদাবাজির কারনে হাজার হাজার নাগরিকের জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। এলাকাবাসী প্রশাসন ও মেয়রের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করে এই জন দূর্ভোগ থেকে পরিত্রান চায়। এলাকাবাসী প্রশ্ন রাখেন -” রাস্তা বড় করে লাভ কি ? যদি রাস্তা দখল করেই হাট বাজার বসানো হয় তাহলে আমরা কার জন্য রাস্তার জায়গা ছাড়বো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here