বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ০৯:১৫ পূর্বাহ্ন

রাজনীতিককে বিয়ের গুঞ্জন: মাহি বললেন, ‘উই আর জাস্ট ফ্রেন্ডস’

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২১ জুন, ২০২১
  • ৪৩ Time View

প্রথম বিচ্ছেদের এক মাসের মাথায় দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে যখন টালমাটাল ফেসবুক টাইমলাইন, ঠিক তখনি তুরুপের তাস ফেললেন মাহিয়া মাহি। আবারও ফেসবুকে ব্যবহার করলেন ‘অপু আবেগ’। যেমনটা করেছেন বিচ্ছেদ ঘোষণার আগে ও পরে।

একইভাবে রবিবার (২০ জুন) বিকালে প্রাক্তনের সঙ্গে ছবি দিয়ে লিখে দিলেন মাহি- ‘তুমি না থাকার শোক অন্য কাউকে নিয়ে ভাবতে দেয় না। আমি তো তোমার দিকেই চেয়ে থাকি, চোখ তো অন্যদিকে যায় না!’

সোশ্যাল হ্যান্ডেলে গেলো ক’মাস ধরে ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে ভক্তদের সঙ্গে ভালোই খেলছেন মাহি। নানা ছবি ও পোস্টের মাধ্যমে বিভ্রান্ত করেছেন সকাল-বিকাল। তবে শেষতক ২৪ মে মধ্যরাতে চূড়ান্ত ঘোষণা দেন অপুর সঙ্গে সংসার জীবনে বিচ্ছেদ সিদ্ধান্তের।

এমন আগুন ঘটনার পর এক মাসও পূর্ণ হলো না। তার আগেই মিললো ঢালিউডের অগ্নিকন্যা মাহির সঙ্গে এক তরুণ রাজনীতিক-ব্যবসায়ীর বিয়ের খবর। নাম রাকিব সরকার। গাজীপুর চৌরাস্তা অঞ্চলের প্রভাবশালী সরকার পরিবারের সদস্য তিনি। গাজীপুর মহানগর যুবলীগের অন্যতম নেতা রাসেল সরকারের আপন ছোট ভাই রাকিব সরকার।

গাজীপুর অঞ্চল থেকেও খবর মিলছে, রাকিব সরকার ও মাহিয়া মাহি বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন সম্প্রতি। বিষয়টি সেখানকার স্থানীয় রাজনীতিতেও এখন বেশ চর্চিত হচ্ছে, তবে ফিসফাসফিস আবহে।

রবিবার (২০ জুন) দুপুরে গাজীপুরের স্থানীয় রাজনীতিবিদদের কাছ থেকে এই বিয়ে সম্পর্কে জানতে পারে বাংলা ট্রিবিউন। তবে এ বিষয়ে মুখফুটে কেউ বলতে নারাজ। কারণ, প্রভাবশালী সরকার পরিবার।

মাহিয়া মাহি/ ছবি: সাজ্জাদ হোসেন

একই সময়ে আলাপ হয় মাহিয়া মাহির। আলাপটি ছিল এমন

বিটি: গাজীপুর চৌরাস্তায় খবর নেওয়ার পর আপনাদের বিয়ের বিষয়টি মোটামুটি নিশ্চিত হওয়া গেলো। প্রায় সবাই অব দ্য রেকর্ড বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এখন আপনার কমেন্ট জরুরি।

মাহি: না। বিয়ে হয়নি। আমরা বন্ধু।

বিটি: মানে ‘উই আর জাস্ট ফ্রেন্ডস’, এটাই বলতে চাইছেন?

মাহি: নিশ্চয়ই। শুধু বন্ধু না, আমরা অনেক অনেক ভালো বন্ধু।

বিটি: কিন্তু রিসেন্টলি ফেসবুকে আপনাদের অ্যাকটিভিটি কিন্তু অন্য বার্তা দেয়। ছবি ও পোস্ট।

মাহি: শুনুন, তার মতো আমার ১০০টা ফ্রেন্ড আছে। যাদের সঙ্গে আমার অসংখ্য ছবি আছে। তাদের সাথেও কি আমার প্রেম? বিয়ে!

বিটি: তাহলে এই গুজব শুধু সরকারকে ঘিরেই উঠলো কীভাবে? গাজীপুরে সরাসরি সরকার পরিবারে আশা-যাওয়া করে এমন লোকের সঙ্গে আলাপ করে আপনাদের বিয়ের আলামত পাওয়া গেছে।

মাহি: তারা আপনাকে ভুল তথ্য দিয়েছেন।

বিটি: তাহলে ফেসবুকে হাতে মেহেদী পরনে লাল বেনারসি, ক্যাপশনে আলহামদুলিল্লাহ—এসবের সম্পর্ক কী!

মাহি: লাল বেনারসি পরলে আর হাতে মেহেদি দিলেই যদি বিয়ে করেছি প্রমাণ হয়, তাহলে তো এই জীবনে কমপক্ষে এক হাজারটা বিয়ে করেছি!

বিটি: তাহলে এই গুঞ্জন সম্পর্কে বা পুরো বিষয়টা নিয়ে আপনার চূড়ান্ত বক্তব্য কী?

না, এই প্রশ্নের আর সরাসরি উত্তর মেলেনি মাহিয়া মাহির কাছে। তবে পরক্ষণেই তিনি ফেসবুকে পোস্ট করলেন সদ্য বিদায়ী স্বামী অপুর সঙ্গে একটি ছবি, লেখেন কাব্যময় বিরহী ক্যাপশন- আমি তো তোমার দিকেই চেয়ে থাকি, চোখ তো অন্যদিকে যায় না!

সমালোচকরা বলছেন, যা রটে তা কিছু না কিছু বটে। রাকিব সরকার ও মাহিয়া মাহি বন্ধু বটে, তবে অপুর সঙ্গে বিচ্ছেদের আগে বা পরে বন্ধুত্ব গড়িয়েছে প্রণয়ে। তারই সফল পরিণতি হতে পারে বিয়ের মধ্য দিয়ে। তবে এর কিছুই প্রকাশ করা যাচ্ছে না এখন। কারণ, অপুর সঙ্গে মাহির আইনি বিচ্ছেদ কার্যকরের জন্য ন্যূনতম তিন মাস তো সময় লাগবে! যার এক মাসও যায়নি এখনও।

ফলে গাজীপুরের সরকার পরিবারে মাহিয়া মাহির বৌ হয়ে যাওয়ার খবরটি আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত হতে গেলে অপেক্ষা করতে হবে আগস্ট মাসের শেষ সপ্তাহ পর্যন্ত!

২০১৬ সালের ২৪ মে হুট করে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে বিয়ে করেন জনপ্রিয় নায়িকা মাহিয়া মাহি। এরপর শুটিং স্পটসহ নানা জায়গায় প্রাণবন্ত উপস্থিতি ছিল অপু ও মাহির। গত ২৪ মে তাদের পঞ্চম বিয়েবার্ষিকীর আগ মুহূর্তে মাহি জানান, একসঙ্গে আর থাকছেন না তারা। ওইদিনই তারা বিচ্ছেদপত্রে স্বাক্ষর করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 bornomala news 24
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102