আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সন্ধ্যা ৬:১৪

বার : শুক্রবার

ঋতু : শীতকাল

বুধবার সকাল থেকে রাজধানীতে বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলোর গণঅবস্থান

বুধবার সকাল থেকে রাজধানীতে বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলোর গণঅবস্থান

৩০ ডিসেম্বর গণমিছিলের পর এবার গণঅবস্থান কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি ও দলটির নেতৃত্বাধীন বিরোধী দলগুলো। বুধবার (১১ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বিরোধী দলগুলো যুগপৎ এ কর্মসূচি পালন করবে। এছাড়া, সারাদেশে গণঅবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) রাতে বিএনপি ও অন্যান্য বিরোধীদলের একাধিক নেতা বাংলা ট্রিবিউনকে কর্মসূচির বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

রাজনৈতিক দলগুলোর সূত্র জানিয়েছে, বুধবারের গণঅবস্থান কর্মসূচি থেকে নতুন কর্মসূচি দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে জনসাধারণের সমস্যাকেন্দ্রীক ইস্যুকে সামনে রেখে বিক্ষোভ সমাবেশ, ক্রমান্বয়ে জেলা পর্যায়ে সমাবেশ দেবে বিএনপি। কর্মসূচির আপাতত দিনক্ষণও ঠিক করেছে বিএনপি ও অন্যান্য দলগুলো। একই ইস্যুতে অন্যান্য দলগুলোও কর্মসূচি দেবে। তবে বিশ্ব ইজতেমার কারণে কর্মসূচির দিনক্ষণ নিয়ে আলোচনা এখনও অব্যাহত আছে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচি পালন করা হবে নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে অনুমতি পেয়েছে বিএনপি।

বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান জানিয়েছেন, বুধবার সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে। এতে এক মাস দলের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটি সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস।

শায়রুল কবির খান জানান, সিলেট, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, বরিশাল, রংপুর, কুমিল্লা, খুলনা, ফরিদপুরে দলের স্থায়ী কমিটি ও অন্যতম নেতারা অংশগ্রহণ করবেন।

রাজনৈতিকদলগুলোর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিএনপির সঙ্গে যুগপৎভাবে গণঅবস্থান কর্মসূচিতে গণতন্ত্র মঞ্চ সকাল ১১টা জাতীয় প্রেস ক্লাব সামনে, ১২ দলীয় জোট বিজয়নগর পানির ট্যাংক, জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট পুরানা পল্টন প্রীতম হোটেলের উল্টো দিকে, কাওরান বাজার এফডিসি সংলগ্ন এলডিপি অফিসের সামনে, গণফোরাম ইডেন কমপ্লেক্স ১৬৭ আরামবাগ দলীয় অফিসের সামনে এবং বাম গণতান্ত্রিক ঐক্য জোট জাতীয় প্রেস ক্লাব সামনে পূর্ব প্রান্তে অবস্থান করবে।

ধারণা করা হচ্ছে, রাজনৈতিক দলগুলোর অবস্থান কর্মসূচির কারণে বুধবার ঢাকায় যানজটের সৃষ্টি হতে পারে।