আজ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সময় : রাত ১১:৫৪

বার : মঙ্গলবার

ঋতু : বর্ষাকাল

‘আবরার বেঁচে থাকলে সবচেয়ে খুশি হতো’

‘আবরার বেঁচে থাকলে সবচেয়ে খুশি হতো’

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ভর্তির সুযোগ পেয়ে খুশি হয়েছেন আবরার ফাহাদের ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ। তবে মা-বাবার সঙ্গে আলোচনা করে ভর্তির বিষয়ে ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নেবেন। বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে বাংলা ট্রিবিউনের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানান তিনি।

এর আগে রাত ৯টায় বুয়েটের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়। আবরার ফাইয়াজ মেধা তালিকায় ৪৫০তম স্থানে রয়েছেন। যন্ত্রকৌশল বিভাগে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পেয়েছেন তিনি।

আবরার ফাইয়াজ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ভর্তির ফল পেয়ে আমি অনেক খুশি হয়েছি। তবে এখন পর্যন্ত কোথায় পড়বো সে সিদ্ধান্ত নেইনি। বর্তমানে ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজিতে ভর্তি আছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছি। এখনও ফল পাইনি। দেখি সেখানে কী ফল আসে। বুয়েটে ভর্তির সময় এখনও দুই সপ্তাহ আছে। এ সময়ের মধ্যে মা-বাবার সঙ্গে আলোচনা করে কোথায় পড়বো সে সিদ্ধান্ত নেবো। তবে বুয়েটে পড়ার আগ্রহ আছে আমার। ইচ্ছা ছিল, ভাই আর আমি একসঙ্গে পড়বো।’

এদিকে, ছোট ছেলে বুয়েটে ভর্তির সুযোগ পাওয়ায় খুশি ফাইয়াজের মা-বাবা। তবে ছেলের নিরাপত্তা ও ভর্তি নিয়ে সন্দিহান তারা।

ছেলের সাফল্যে খুশি বাবা বরকত উল্লাহ বলেন, ফলের খবর শুনে খুশি হয়েছি। তবে আতঙ্কও কাজ করছে। ভর্তি করাবো কিনা তা নিয়ে আরও চিন্তাভাবনা করতে হবে। কারণ আমি এখন অসহায়। আর হারাতে চাই না।

ফাইয়াজের মা রোকেয়া খাতুন বলেন, আবরার বেঁচে থাকলে আজ সবচেয়ে খুশি হতো। কারণ দুই ভাইয়ের ইচ্ছা ছিল বুয়েটে পড়ার। সেভাবেই দুই ছেলেকে তৈরি করেছিলাম। কিন্তু হলো না। আবরারকে হারিয়ে এখনও কাঁদছি। তার শূন্যতা আজীবন থেকে যাবে। এর মধ্যে ছোট ছেলের ফলের খবর পেলাম। আমি খুব ভয়ে আছি। ভর্তির বিষয়ে এখনও কিছু বলতে পারছি না।

২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর বুয়েটের শেরেবাংলা আবাসিক হলে নির্যাতনে নিহত হয়েছিলেন ফাইয়াজের বড় ভাই বিশ্ববিদ্যালয়ের তড়িৎ কৌশল বিভাগের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ। এ ঘটনায় ৭ অক্টোবর তার বাবা ১৯ শিক্ষার্থীকে আসামি করে চকবাজার থানায় মামলা করেন। এরপর মামলা তদন্ত করে ২৫ জনকে আসামি করে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। তাদের সবাই বুয়েটের বিভিন্ন বর্ষের ছাত্র এবং ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। গত বছরের ৮ ডিসেম্বর এ মামলায় ২০ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও পাঁচ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category