আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

সময় : বিকাল ৫:৪৬

বার : শুক্রবার

ঋতু : শীতকাল

ফিলিস্তিন সমর্থক রোনালদো রাজনীতির শিকার: এরদোয়ান

ফিলিস্তিন সমর্থক রোনালদো রাজনীতির শিকার: এরদোয়ান

পর্তুগালের তারকা ফুটবলার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো বিশ্বকাপে রাজনীতির শিকার হয়েছেন। রবিবার এমন অভিযোগ তুলেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান। পর্তুগিজ এই তারকাকে লিওনেল মেসির সঙ্গেও তুলনা করেন তিনি। সোমবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

এরদোয়ান বলেন, ‘ওরা রোনালদোকে কাজে লাগায়নি। দুর্ভাগ্যবশত, তারা তার ওপর রাজনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। ম্যাচের মাত্র ৩০ মিনিট বাকি থাকতে রোনালদোর মতো একজন ফুটবলারকে মাঠে পাঠানো হয়েছে। এটি তার মনস্তত্ত্বকে নষ্ট করেছে এবং তার তেজোদীপ্ততা কেড়ে নিয়েছে। রোনালদো এমন একজন ব্যক্তি, যিনি ফিলিস্তিনের পক্ষে দাঁড়িয়েছেন।’

মরক্কোর বিপক্ষে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ১-০ গোলে পরাজিত হয় পর্তুগাল। সেদিন খেলার দ্বিতীয়ার্ধে বিকল্প হিসেবে মাঠে নামানো হয়েছিল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে।

রাউন্ড অব ১৬-এ পর্তুগাল যখন সুইজারল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছিল তখনও বেঞ্চে বিকল্প হিসেবে দেখা গিয়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এবং রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক এই তারকা ফুটবলারকে।

রোনালদোর জন্য মরক্কোর বিপক্ষে পর্তুগালের পরাজয়ের একটি স্বতন্ত্র ব্যাখ্যা দিয়েছেন তিনি। সেটি হচ্ছে রোনালদো হলেন পৃথক পাঁচটি বিশ্বকাপে গোল করা একমাত্র খেলোয়াড়, যিনি এবারের বিশ্বকাপে কোনও গোলের দেখা পাননি। অথচ খুব সম্ভবত এটিই তার শেষ বিশ্বকাপ।

চেঞ্জিং রুমের দিকে হেঁটে যাওয়ার সময় চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি এই পর্তুগিজ তারকা।

ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাত নিয়ে রোনালদোর তরফে কখনও প্রকাশ্যে কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে অনলাইনে অনেক সময় এ সংক্রান্ত ভুয়া খবর ছড়িয়েছে।

নিজের গোল্ডেন বুট পুরস্কার নিলামে তোলার পর ফিলিস্তিনিদের জন্য রোনালদোর দেড় মিলিয়ন ইউরো দান করার একটি ভুয়া খবর ব্যাপকভাবে প্রচারিত হয়েছিল। তবে ২০১৯ সালে রোনালদোকে প্রতিনিধিত্বকারী একটি স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি ওই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে।

এই তারকা ফুটবলারের স্প্যানিশ ভাষায় ‘টুগেদার উইদ দ্য ফিলিস্তিনি’ লেখা একটি ইমেজও অনলাইনে ব্যাপকভাবে শেয়ার হয়েছিল। তবে সেটিও ছিল ভুয়া। সেখানে যে ছবিটি ব্যবহার করা হয়েছিল সেটি ছিল ২০১১ সালে স্পেনে ভূমিকম্পের শিকার হওয়া ব্যক্তিদের প্রতি রোনালদোর একটি অভিব্যক্তি।

রোনালদোর কাঁধে ফিলিস্তিনি স্কার্ফ পরা একটি ছবি রয়েছে। তবে সেটি আসলে তাকে পরানো হয়েছিল ফিলিস্তিনি ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের তরফে। ওই অনুষ্ঠানে ফিলিস্তিনি অ্যাসোসিয়েশন প্রধান জিব্রিল রাজউবের পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন তিনি।

বেশ কয়েকজন ইসরায়েলি মন্ত্রীর সঙ্গেও দেখা করেছেন এই পর্তুগিজ তারকা। সাবেক ইসরায়েলি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজের সঙ্গেও তার ছবি রয়েছে। সেখানে তাকে ইসরায়েলি মন্ত্রীকে নিজের একটি ফুটবল শার্ট উপহার দিতে দেখা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category