আজ ১০ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সময় : ভোর ৫:৪৮

বার : সোমবার

ঋতু : বর্ষাকাল

চাপে দক্ষিণ আফ্রিকা ২৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ।

বাংলাদেশের পেস বোলিং আক্রমণে কুপোকাত দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল। টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপাকে প্রোটিয়ারা। ৪.২ ওভারে মাত্র ২৩ রান করতেই প্রথম সারির ৪ ব্যাটসম্যানের উইকেট হারিয়ে চাপে পড়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।প্রোটিয়া শিবিরে একের পর এক আঘাত হানেন তরুণ পেসার তানজিম হাসান সাকিব। তার গতির শিকার হয়ে ফেরেন দক্ষিণ আফ্রিকার দুই তারকা ওপেনার রিজা হেনড্রিকস ও কুইন্টন ডি কক।

ইনিংসের প্রথম ওভারের একিবারে শেষ বলে প্রোটিয়া ওপেনার রিজা হেনড্রিকসকে এলবিডব্লিউ করেন সাকিব। তার বিদায়ে ১ ওভারে ১১ রানে প্রথম উইকেট হারায় প্রোটিয়ারা।

ইনিংসের তৃতীয় ওভারে বোলিংয়ে এসে তৃতীয় বলে দক্ষিণ আফ্রিকার অভিজ্ঞ ওপেনার কুইন্টন ডি কককে ফেরান তানজিম সাকিব। ২.৩ ওভারে ১৯ রানে সাজঘরে ফেরার আগে ১১ বলে এক চার আর দুই ছক্কায় ১৮ রান করে ফেরেন ডি কক।

চতুর্থ ওভারের পঞ্চম বলে দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক এইডেন মার্করামকে বোল্ড করে ফেরান বাংলাদেশ দলের তারকা পেসার তাসকিন আহমেদ।মার্করাম ৮ বলে ৪ রান করে ফেরেন।

এরপর প্রোটিয়া শিবিরে ফের আঘাত হানেন তানজিম হাসান সাকিব। ইনিংসের পঞ্চম ওভারের দ্বিতীয় বলে সাকিব আল হাসানের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন ট্রিস্টান স্টাবস। ৫ বলে শূন্য রানে ফেরেন তিনি। তার বিদায়ে ৪.২ ওভারে মাত্র ২৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা।সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের নাসাউ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চলতি নবম আসরের ২১তম ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা টি-টোয়েন্টিতে এর আগে ৮ ম্যাচে অংশ নেয়। অতীতের সেই সাক্ষাতে একক আধিপত্য বিস্তার করে জয় পায় প্রোটিয়ারা।

দক্ষিণ আফ্রিকা চলতি বিশ্বকাপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচ খেলছে। প্রথম ম্যাচে তারা সাবেক চ্যাম্পিয়ন শ্রীলংকাকে ৭৭ রানে গুঁড়িয়ে দিয়ে দাপুটে জয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করে। দ্বিতীয় ম্যাচে নেদারল্যান্ডসে ১০৩/৯ রানে থামিয়ে ৬ উইকেটের জয় পায়।আর বাংলাদেশ ক্রিকেট দল নিজেদের প্রথম ম্যাচে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন শ্রীলংকাকে হারিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করে। আজ দ্বিতীয় ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি টাইগাররা। এই ম্যাচেও জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চায় বাংলাদেশ দল।

বাংলাদেশ: তানজিদ হাসান, লিটন দাস, নাজমুল হোসেন (অধিনায়ক), তাওহিদ হৃদয়, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ, জাকের আলী, রিশাদ হোসেন, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান ও তানজিম হাসান।

দক্ষিণ আফ্রিকা: কুইন্টন ডি কক (উইকেটকিপার), রিজা হেনড্রিকস, এইডেন মার্করাম (অধিনায়ক), হাইনরিখ ক্লাসেন, ডেভিড মিলার, ট্রিস্টান স্টাবস, মার্কো ইয়ানসেন, কেশব মহারাজ, কাগিসো রাবাদা, আনরিখ নর্কিয়া এবং ওটনিল বার্টম্যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category