আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সন্ধ্যা ৬:১৭

বার : বৃহস্পতিবার

ঋতু : বর্ষাকাল

ঢেকে যাচ্ছে ক্রিকেটারদের ব্যর্থতা আম্পায়ারের ওপর দোষ চাপাতে গিয়ে।

তখন জয়ের গন্ধ নাকে এসে লাগছিল বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের। টিম বাংলাদেশ তখন জয় থেকে ২৭ রান দূরে। বল বাকি ২৪টি। টাইগারদের হাতে ৬ উইকেট। ক্রিজে সেট ব্যাটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও তাওহিদ হৃদয়।

ঠিক এমন সময় প্রোটিয়া ফাস্ট বোলার কাগিসো রাবাদার ইন-সুইং ধরনের ডেলিভারি ফ্লিক শট খেলতে গিয়ে ব্যাটে আনতে পারলেন না রিয়াদ। বল তার ব্যাট ফাঁকি দিয়ে প্যাডে আঘাত হানলো। প্রোটিয়াদের আবেদনের মুখে আম্পায়ার লেগবিফোর উইকেটের সঙ্কেত দিলেন।বল লেগস্ট্যাম্প মিস করতো, এই দাবিতে চট জলদি রিভিউয়ের আবেদন করলেন রিয়াদ। আবেদন গ্রাহ্য হলো। টিভি রিপ্লেতে পরিষ্কার দেখা গেল বল লেগস্ট্যাম্পের বাইরে বেরিয়ে যাচ্ছিল। খুব স্বাভাবিকভাবেই থার্ড আম্পায়ারের সাথে কথা বলে সিদ্ধান্ত পাল্টে নট আউট ঘোষণা দিলেন অস্ট্রেলিয়ান স্যাম নোগাসকি।

এটাই শেষ নয়। ঘটনা আরও আছে। আম্পায়ার প্রথমে আউট দেয়ায় নিয়ম অনুযায়ী বল ডেড হয়ে গিয়েছিল এবং সেই বল সীমানার ওপারে চলে গেলেও লেগবাই থেকে বাউন্ডারির ৪ রান পায়নি বাংলাদেশ। আম্পায়ার আউটের সঙ্কেত না দিলে বল সীমানার ওপারে যাওয়ার কারণে ৪ রান যোগ হতো বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে।তাতে করে দেখা যাচ্ছে, বাংলাদেশ আর ৪ রানে হারতো না। কাকতালীয়ভাবে ওই ৪ রানের ব্যবধানে হারের কারণে অসি আম্পায়ার স্যাম নোগাসকির আউটের সিদ্ধান্তটি খুব বড় হয়ে দেখা দিয়েছে। বাংলাদেশের ভক্ত, সমর্থকরা আম্পায়ারের সমালোচনায় মুখর। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আম্পায়ারের চৌদ্দ গোষ্টি উদ্ধার হচ্ছে।

বাংলাদেশ ভক্তদের সাথে টিভি ধারাভাষ্যকার ওয়াকার ইউনুস, হার্শা ভোগলেরা যোগ হওয়ায় ব্যাপারটা গুরুত্ব পাচ্ছে খুব বেশি এবং এ মুহূর্তে রিয়াদের প্যাডে লেগে বাউন্ডারি হলেও আম্পায়ারের আউটের ভুল সিদ্ধান্তে তা ‘ডেড বলে’ পরিণত হওয়ায় সব দায় এসে পড়েছে আম্পায়ারের ওপর। বলা হচ্ছে, এই আইনটি পরিবর্তন হওয়া প্রয়োজন।এটা ঠিক যে, খালি চোখেই মনে হচ্ছিল বল লেগস্ট্যাম্পের বাইরে দিয়ে যাচ্ছিল, তবু আম্পায়ার আউট দিয়ে ফেলেছেন। আইসিসির প্লেয়িং কন্ডিশনে এমন অবস্থায় ব্যাটিংয়ে থাকা দলের স্কোরে কোন রান না যোগ হওয়ার নিয়মও বহাল। তাই আসলে কিছু করার নেই।

আম্পায়ারের ভুলটা ‘মানবীয় ভুল’ ধরে নিয়ে ভাগ্যকে দোষারারোপ করা ছাড়া আসলে কিছু করার নেই বাংলাদেশের। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী এ অবস্থায় বাউন্ডারি বা ১, ২ কিংবা ৩ রান যোগ হবে না। মানে কোনো রানই হবে না। কারণ যা ঘটেছে, তা নিয়মের মধ্যেই ঘটেছে।এমন নয় যে নিয়মের ব্যত্যয় ঘটিয়ে কোন সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের বিপক্ষে গেছে। তাই নিজেদের দূর্ভাগা ভাবা ছাড়া আর কিছুই করার নেই টাইগারদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category